Abdullahil HadiQ/A

মহিলাদের উঁচু আওয়াজে সুর করে কুরআন তিলাওয়াতের বিধান

মহিলাদের উঁচু আওয়াজে সুর করে কুরআন তিলাওয়াতের বিধান। যদি বাইরের কোন পুরুষ মানুষ না থাকে তাহলে মহিলারা বাড়িতে একাকী সালাত আদায় করার সময় অথবা সালাতের বাইরে কিছুটা আওয়াজ উঁচু করে কি কিরাআত পাঠ করতে পারবে কি?

হ্যাঁ, মহিলারা সালাতের মধ্যে (যেমন: মাগরিব ও ইশার প্রথম দু রাকআত ও ফজরের দু রাকআত, রাতের তারাবিহ, তাহাজ্জুদ ইত্যাদি জেহরি সালাতে) অথবা সালাতে বাইরে একটু উঁচু আওয়াজে সুর করে কুরআন তিলাওয়াত করতে পারে (সুন্নত) যদি কোনও পরপুরুষ তার কণ্ঠস্বর শোনার সম্ভাবনা না থাকে। কেননা নন মাহরাম পুরুষদের সামনে নারীর আকর্ষণীয় ভঙ্গীতে সুকণ্ঠের তিলাওয়াত ফিতনা সৃষ্টি করার সম্ভাবনা রয়েছে।
তবে বিশেষ প্রয়োজনে সাধারণ ভাবে পরপুরুষের সামনে তিলাওয়াত করা জায়েজ আছে। এ অবস্থায় সুললিত ও নরম কণ্ঠস্বরের ব্যবহার এবং আকর্ষণীয় ভঙ্গীতে তিলাওয়াত পরিহার করবে। এ ক্ষত্রে মহান আল্লাহর এই বাণীটি প্রযোজ্য:

إِنِ اتَّقَيْتُنَّ فَلَا تَخْضَعْنَ بِالْقَوْلِ فَيَطْمَعَ الَّذِي فِي قَلْبِهِ مَرَضٌ وَقُلْنَ قَوْلًا مَّعْرُوفًا
“যদি তোমরা আল্লাহকে ভয় কর, তবে পরপুরুষের সাথে কোমল ও আকর্ষণীয় ভঙ্গিতে কথা বলো না। অন্যথায় কুবাসনা করবে যার অন্তরে ব্যাধি রয়েছে। আর তোমরা সঙ্গত কথাবার্তা বলবে।”
(সূরা আহযাব: ৩২)

সুতরাং মহিলারা তাদের স্বামীর সামনে এবং সন্তান, বাবা, দাদা, ভাই, ভাতিজা চাচা, মামা ইত্যাদি মাহরাম পুরুষদের সামনে কিংবা মহিলা অঙ্গনে কিছুটা উঁচু আওয়াজে সুকণ্ঠে তিলাওয়াত করতে পারে। কেননা একাধিক হাদিসে সুন্দর আওয়াজে তিলাওয়াতের ব্যাপারে উৎসাহিত করা হয়েছে।
অনুরূপভাবে তার তিলাওয়াত যেন তার পাশের কোন ঘুমন্ত বা ইবাদতে রত ব্যক্তির বিরক্তির কারণ না হয় তাও লক্ষ্য রাখা জরুরি। এতে যদি পার্শ্বস্থ কোনও ঘুমন্ত ব্যক্তির ঘুমে অথবা ইবাদতে রত ব্যক্তির ইবাদতে ব্যাঘাত সৃষ্টি করে তাহলে নিচু আওয়াজে তিলাওয়াত করবে। এটি নারী-পুরুষ সকলের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য।

হাদিসে পার্শ্ববর্তী ব্যক্তির সালাত, কুরআন তিলাওয়াত, দুআ-তসবিহ ইত্যাদি ইবাদতে যেন বিঘ্ন সৃষ্টি না হয় সে জন্য উচ্চ আওয়াজে কুরআন তিলাওয়াত করতে নিষেধ করা হয়েছে। যেমন:
عن أبي سعيدٍ قالَ اعتَكفَ رسولُ اللَّهِ صلَّى اللَّهُ عليْهِ وسلَّمَ في المسجدِ فسمِعَهم يجْهَرونَ بالقراءةِ فَكشفَ السِّترَ وقالَ ألا إنَّ كلَّكم مُناجٍ ربَّهُ فلا يؤذِيَنَّ بعضُكم بعضًا ولا يرفعْ بعضُكم على بعضٍ في القراءةِ أو قالَ في الصَّلاةِ.
আবু সাঈদ খুদরী রা. বর্ণনা করেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম মসজিদে (মসজিদে নববী) ইতিকাফ করছিলেন। এমন সময় তিনি শুনতে পেলেন, লোকেরা উঁচু স্বরে কুরআন তিলাওয়াত করছে।

তখন তিনি পর্দার কাপড় সরিয়ে তাদের লক্ষ্য করে বললেন,
“মনে রাখবে, তোমাদের সবাই তার পালনকর্তার সঙ্গে একান্ত আলাপচারিতায় নিমগ্ন রয়েছ। অতএব তোমাদের একজন অপরজনকে কষ্ট দিবে না এবং তিলাওয়াতের ক্ষেত্রে (অথবা তিনি বলেছেন: সালাতের ক্ষেত্রে) একজন অপরজনের উপর আওয়াজ উঁচু করবে না।”
[সুনানে আবু দাউদ, হাদিস: ১৩৩২; সহীহ ইবনে খুযাইমা, হাদিস: ১১৬৫, শাইখ আলাবানি হাদিসটিকে সহিহ বলেছেন]

লিখেছেন

Show More

Related Articles

Leave a Reply, if you have comments about this post.

Back to top button