Sheikh Ahmad UllahWriting

যাকাতের টুকিটাকি – পর্ব ০৩

কাউকে না বলে যাকাতের টাকা দেওয়া যাবে কিনা?

হ্যা, আপনি কাউকে না বলে যাকাতের টাকা দিতে পারবেন। আমাদের আশেপাশের এমন অনেক অভাবী মানুষ আছেন কিংবা নিকটাত্মীয় আছেন যাদের সংসারে অভাব আছে কিন্তু বলতে পারেনা‌ এবং এক্ষেত্রে দেখা যায় যদি আপনি যাকাতের টাকা দেওয়ার সময় যাকাতের কথা উল্লেখ করেন তবে নিতে ইতস্তত বোধ করে,অনেকে কষ্ট ও পেতে পারে।এরূপ ক্ষেত্রে আপনি না জানিয়ে যাকাতের টাকা দিতে পারেন, সেক্ষেত্রে শুধু মনে নিয়ত করে নিলেই হবে যে আমি যাকাতের টাকা আদায় করছি।

স্বর্ণ ও রৌপ্যের মধ্যে কোনটিকে নিসাব হিসেবে ধরতে হবে?

স্বর্ণ ও রূপার বাজার দরে পার্থক্য বিদ্যমান। স্বাভাবিকভাবেই স্বর্ণের দাম রূপার থেকে বেশি আর এতেই প্রশ্ন জাগে কোনটিকে আমরা মার্জিন হিসেবে ধরতে পারি। এক্ষেত্রে প্রথম কথা হচ্ছে আপনার সম্পদ স্বর্ণ বা রূপা যেকোনোটার নেসাব পরিমাণ হলেই যাকাত আদায় করতে হবে। কিন্তু আপনার নগদ টাকা আছে, ব্যবসার সম্পদ আছে যা সাড়ে সাত তোলা স্বর্ণের মূল্যের সমপরিমাণ না হলেও সাড়ে বায়ান্ন তোলা রূপার মার্জিন অতিক্রম করে গিয়েছে, সেক্ষেত্রে আপনাকে সাড়ে বায়ান্ন তোলা রূপাকে নেসাব ধরেই যাকাত আদায় করতে হবে। আর এজন্যই সাধারণত সাড়ে বায়ান্ন তোলা রূপার বাজার দরকে স্ট্যান্ডার্ড মার্জিন হিসেবে ধরে বের করা হয় যাকাত ফরজ হচ্ছে কিনা।

বাবা মাকে যাকাতের টাকা দেওয়া যাবে কিনা?

বাবা মাকে যাকাতের টাকা দেওয়া যাবে না। এক‌ইভাবে আপনার সন্তানকে, নাতিকে যাকাতের টাকা দেওয়া যাবে না। এদের ভরণপোষণের দায়িত্ব আপনার তাই এদের যাকাত দেওয়া যাবে না।

ডায়মন্ডের যাকাত দিতে হবে কিনা?

ডায়মন্ড যদি আপনার কাছে অলংকার হিসেবে থাকে তবে যাকাত দেওয়ার দরকার নেই। কিন্তু আপনার ডায়মন্ডের দোকান আছে, এক্ষেত্রে ডায়মন্ড আপনার ব্যবসায়িক মূলধন।তাই ব্যবসায়িক সম্পদের হিসাব করে যাকাত আদায় করতে হবে।

স্ত্রীর যাকাত স্বামী আদায় করলে হবে কিনা?

হ্যা স্ত্রীর যাকাত স্বামী আদায় করতে পারবেন তবে অবশ্যই স্ত্রীকে জানাতে হবে যে তার যাকাত আপনি আদায় করে দিচ্ছেন।

কোনো বেনামাজিকে যাকাত দেওয়া যাবে কিনা?

বেনামাজি যদি নামাজকে অস্বীকার না করেন,নামাজ পড়া উচিত এরকম বোধ ধারণ করেন কিংবা নামাজ না পড়ার জন্য অপরাধবোধ থাকে তবে তাকে যাকাত দেওয়া যাবে। তবে কিছু উলামায়ে কেরামগণের মতে বেনামাজি কাফের আর এরূপ ক্ষেত্রে যাকাত দেওয়া যাবে না।

কিছু স্বর্ণ আর কিছু টাকা আছে কোনোটারই নেসাব পূর্ণ হয়নি, যাকাত দিবো কিভাবে?

ধরুন আপনার কাছে তিন ভরি স্বর্ণ আছে আর বিশ হাজার টাকা আছে। আলাদাভাবে তিন ভরি স্বর্ণ দিয়ে নেসাব পরিমাণ স্বর্ণের সমান হয় না।আবার বিশ হাজার টাকা সাড়ে বায়ান্ন তোলা রূপার বাজার দর থেকেও কম,অত‌এব এটাও নেসাব পরিমাণ হচ্ছে না-তো এরকম পরিস্থিতিতে কি করবেন?
এরকম পরিস্থিতিতে করণীয় হচ্ছে, তিন ভরি স্বর্ণের মূল্য বের করা,ধরুন এখানে আসলো দেড় লাখ টাকা। এরপর এর সাথে বিশ হাজার টাকা যোগ করুন,আসলো এক লাখ সত্তর হাজার টাকা।এখন আপনার টাকার অঙ্ক নেসাব পরিমাণ রূপার বাজার মূল্য অতিক্রম করে গিয়েছে আর তাই এখন এই মূল্যের আড়াই শতাংশ যাকাত দিয়ে দিতে হবে।

বর্তমান বাজার মূল্য ধরে দিতে হবে নাকি যেই মূল্যে ক্রয় করেছি তা ধরে দিতে হবে?

স্বর্ণ বা রূপার যাকাত কি বর্তমান বাজার মূল্য ধরে দিতে হবে নাকি যেই মূল্যে ক্রয় করেছিলেন তা ধরে দিতে হবে?
আপনি দেখবেন আপনার কাছে থাকা স্বর্ণ বা রূপা বিক্রি করতে গেলে কতো টাকা পাবেন আর সেই টাকা হিসেব করে যাকাত আদায় করতে হবে।কতো টাকা দিয়ে কিনেছিলেন তা এক্ষেত্রে বিবেচ্য নয়।

বাড়ি, গাড়ি, অ্যাপার্টমেন্ট এর উপর যাকাত ধার্য হবে কিনা?

ধরুন আপনার বিশ লক্ষ টাকা মূল্যের একটা অ্যাপার্টমেন্ট আছে কিংবা পনের লক্ষ টাকা মূল্যের একটা গাড়ি আছে সেক্ষেত্রে যাকাত দিতে হবে কিনা, উত্তর হচ্ছে না, দিতে হবে না। তবে আপনি ফ্ল্যাট বা গাড়ি ভাড়া দিচ্ছেন তবে সেখান থেকে আপনার উপার্জন আছে আর তা যদি জমে যাকাতের নেসাব পরিমাণ হয় তবে আপনাকে যাকাত দিতে হবে।

প্রভিডেন্ট ফান্ডের টাকার যাকাত দিতে হবে কিনা?

প্রভিডেন্ট ফান্ড দুই রকম হয়-
১. বাধ্যতামূলক; এক্ষেত্রে চাকুরীজীবির অনিচ্ছায় বাধ্যতামূলকভাবে টাকা কেটে রাখা হয় এবং চাকুরী শেষ করার আগে তিনি টাকা পান না। এরূপ ক্ষেত্রে উক্ত চাকুরিজীবীকে এই প্রভিডেন্ট ফান্ডের জন্য যাকাত দিতে হবে না।

২.ইচ্ছাকৃত; এক্ষেত্রে চাকুরীজীবির ইচ্ছায় টাকা জমা হয়। যেহেতু চাকুরীজীবী স্বেচ্ছায় টাকা জমা করছেন তথা সঞ্চয় করছেন তাই এই প্রভিডেন্ট ফান্ডের জন্য যাকাত দিতে হবে।

|| যাকাতের টুকিটাকি ||
পর্ব ০৩
|| যাকাতের টুকিটাকি ||
পর্ব ০২

উত্তর প্রদানে
শায়খ আহমাদুল্লাহ

শ্রুতিলিখন
মাহিনুর রহমান

লিখেছেন

  • আমি মাহিনুর রহমান, এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজের ফাইনাল ইয়ারের ছাত্র হিসেবে পড়াশোনা করছি।
    জেনারেল লাইনে পড়াশোনার ব্যস্ততায় দ্বীনি জ্ঞানার্জনের সুযোগ খুবই কম পেয়েছি তারপরও অনলাইন ভিত্তিক দাওয়াহ এবং ইসলামী ব‌ইয়ের সুবাদে ইসলাম সম্পর্কে জ্ঞানার্জনের সুযোগ হয়েছে আলহামদুলিল্লাহ।
    সেই জ্ঞানকে ছড়িয়ে দেওয়ার পাশাপাশি ইসলামের সৌন্দর্যকে উম্মাহর সামনে ফুটিয়ে তোলার উদ্দেশ্যকে সামনে রেখেই আমার এই টুকটাক লেখালেখি।

    View all posts

Show More

Related Articles

Leave a Reply, if you have comments about this post.

Back to top button