WritingAbdullahil Hadi

হারানো বস্তু খুঁজে পাওয়ার বিশেষ আমল ও দুআ

কোনও হারিয়ে যাওয়া বা চুরি হয়ে যাওয়া জিনিস ফিরে পাওয়ার কি কোনও নির্দিষ্ট আমল আছে?
হাদিসে বর্ণিত হয়েছে,
جاء عند ابن أبي شيبة في مصنفه والطبراني من حديث ابن عمر رضي الله عنهما ما معناه: أن من ضاع له شيء فليتوضأ وليصل ركعتين وليتشهد وليقل: “بسم الله يا هادي الضلال وراد الضالة اردد علي ضالتي بعزتك وسلطانك فإنها من عطائك وفضلك”
قال الحاكم رواته موثقون مدنيون لا يعرف واحد منهم بجرح
আবদুল্লাহ ইবনে উমর রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, “কারো কোন কিছু হারিয়ে গেলে সে যেন অজু করার পর‌ দু রাকাত সালাত আদায় করে এবং তাশাহুদ পড়ার করার পর

নিম্নোক্ত দোয়াটি পাঠ করে:
بسم الله يا هادي الضلال وراد الضالة اردد علي ضالتي بعزتك وسلطانك فإنها من عطائك وفضلك
উচ্চারণ:
বিসমিল্লাহ। ইয়া হাদিয়ায দ্বলাল, ওয়া রা-দ্দাদ দ্বা-ল্লাহ, উরদুদ‌ ‘আলাইয়া দ্বা-ল্লাতী বি ইযযাতিকা ওয়া সুলত্বা-নিকা।‌ ফাইন্নাহা মিন ‘আত্বায়িকা ও ফদ্বলিক।
অর্থ:
“আল্লাহর নামে শুরু। হে হারানো জিনিসের সন্ধান দাতা, হারানো বস্তু প্রত্যাবর্তনকারী, আপনার সম্মান এবং ক্ষমতার উসিলা দিয়ে প্রার্থনা করছি, আপনি আমাকে আমার হারানো জিনিসটি ফিরিয়ে দিন। এটি আপনার দান এবং অনুগ্রহ।”
[মুসান্নাফে ইবনে আবী শায়বা ও‌ ত্ববারানী]

ইমাম হাকিম রহ. বলেন,‌ এর বর্ণনাকারীগণ সকলেই নির্ভরযোগ্য মাদানী। তাদের কারো ব্যাপারে কোনও দোষ-ত্রুটি জানা যায় না। ইমাম বাইহাকী বলেন, এর সনদ হাসান।
সূত্র: আল‌ ওয়াবিলুস সাইয়েব/ ১৯১]

লক্ষণীয় যে, এ হাদিসটি ইবনে উমর রা. পর্যন্ত মাউকুফ হিসেবে সাব্যস্ত (হাসান)। অর্থাৎ এটি ইবনে উমর রা. এর আমল হিসেবে প্রমাণিত। কিন্তু মারফু তথা রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর মুখনিঃসৃত হাদিস বা আমল হিসেবে জইফ-যেমনটি হায়সামি তার মাজমাউয যাওয়ায়েদ গ্রন্থে উল্লেখ করেছেন।
قد روى الطبراني في معجمه الكبير والأوسط عن ابن عمر عن النبي صلى الله عليه وسلم في الضالة أنه كان يقول: اللهم راد الضالة وهادي الضلالة أنت تهدي من الضلالة اردد علي ضالتي بعزتك وسلطانك. فإنها من عطائك وفضلك. قال الهيتمي في مجمع الزوائد: رواه الطبراني في الثلاثة وفيه عبد الرحمن بن يعقوب بن أبي عباد المكي ولم أعرفه وبقية رجاله ثقات.

সুতরাং এ হাদিসের উপর আমল করায় কোনও দোষ নেই ইনশাআল্লাহ। কেননা মহান আল্লাহ বলেন,

وَٱسۡتَعِينُواْ بِٱلصَّبۡرِ وَٱلصَّلَوٰةِۚ
“আর তোমরা ধৈর্য ও সালাতের মাধ্যমে সাহায্য প্রার্থনা করো ।”
[সূরা আল বাকারা: ৪৫]

আর হাদিস দ্বারা প্রমাণিত যে, রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম যে কোনও বিপদাপদে সালাতে দাঁড়িয়ে যেতেন।
আর এ কথাও প্রমাণিত যে, সালাতে সেজদা অবস্থায় ও শেষ তাশাহুদে বসে নিজের প্রয়োজনীয় দুআ করা জায়েজ আছে।

সুতরাং কোনও কিছু হারিয়ে গেলে দু রাকাত সালাত আদায় করে তাশাহুদে বসে সালাম ফিরানোর পূর্বে এ দুআটি পড়ায় কোনও আপত্তি নাই ইনশাআল্লাহ।
আল্লাহু আলাম।

উত্তর প্রদানে:
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল
দাঈ জুবাইল দাওয়াহ এন্ড গাইডেন্স সেন্টার সউদী আরব

লিখেছেন

Show More

Related Articles

Leave a Reply, if you have comments about this post.

Back to top button